মধুর উপকারিতা ও মধু খাওয়ার নিয়ম
মাসে ১০ কেজি ওজন কমানোর খাবার তালিকা
আমার ৩৪ কেজি ওজন কামানোর কথা
টনসিলের ঔষধ

টনসিলের ওষুধ | টনসিল হলে কি করবেন

টনসিল শব্দটি আমাদের কাছে খুবই পরিচিত। গলায় সামান্য ব্যথা বলেই আমরা মনে করি টনসিলের সমস্যা হয়েছে। কিন্তু টনসিল আসলে কী? টনসিল আমাদের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থার একটি অংশ। গলার পেছনের দিকে এবং মুখের ভেতরে মোট চারটি অংশে বিভক্ত। এই চারটি অংশের নাম হলো লিঙ্গুয়াল, প্যালাটাইন, টিউবাল ও অ্যাডেনয়েড৷ টনসিল আমাদের
ঘুম কমানোর উপায়

ঘুম কমানোর উপায়

আমাদের সংক্ষিপ্ত জীবনে সময়ের হিসাব মেলানো খুবই গুরুত্বপূর্ণ। প্রতিদিন সময়ের সদ্ব্যবহার করলেই জীবনে সফলতা অর্জন করা সম্ভব৷ কিন্তু আমরা অনেকেই দিন-রাত্রির বড় একটি সময় বিছানায় ঘুমিয়ে কাটিয়ে দেই। কেউ কাজের প্রতি অনীহা করে  ঘুমান, আবার কেউ অনিচ্ছাকৃতভাবে। চিকিৎসকদের ভাষায় একজন মানুষের সুস্থ থাকার জন্য ৮ ঘণ্টার ঘুমই যথেষ্ট। কোনো কোনো
মধুর উপকারিতা ও মধু খাওয়ার নিয়ম

মধুর উপকারিতা ও মধু খাওয়ার নিয়ম

প্রকৃতি থেকে প্রাপ্ত উপকারী খাদ্যের মধ্যে মধু অন্যতম। হাজার বছর ধরে এটি মানুষের নিকট একটি গুরুত্বপূর্ণ খাবার। ধারণা করা হয় যে, প্রাচীন মিশরীয়রা সর্বপ্রথম মধুকে খাদ্য হিসেবে গ্রহণ করার প্রচলন শুরু করে। এর হাজার বছর পর আজ এটি শুধু খাদ্যের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকেনি! সময়ের পরিক্রমায় মানুষের নিকট গুরুত্বপূর্ণ ঔষধে পরিণত
ডেঙ্গু থেকে মুক্তির উপায়

ডেঙ্গু জ্বর হলে করনীয় | ডেঙ্গু জ্বরের লক্ষণ সমূহ ও ঘরোয়া ঔষধ

ডেঙ্গুকে ঘাতক জ্বরও বলা হয়। এই জ্বরের ভাইরাস বা জীবাণু সরাসরি একজনের দেহ থেকে আরেকজনের দেহে যেতে পারে না। জ্বরে আক্রান্ত ব্যাক্তির রক্তে থাকা জীবাণু মশার মাধ্যমে আশে পাশের অন্য কারো শরীরে প্রবেশ করলে তারও ডেঙ্গু জ্বর হয়।
home remedies for fever

জ্বর কমানোর প্রাকৃতিক চিকিৎসা

শরীরের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি হলে তাকে আমরা জ্বর বলি। ৯৮.৬ ডিগ্রি ফারেনহাইট অথবা ৩৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রাকে আমরা স্বাভাবিক হিসেবে গণ্য করি। কিন্তু এটা সর্বজন গ্রহণযোগ্য মত না। বয়সভেদে দেহের স্বাভাবিক তাপমাত্রার ভিন্নতা হয়। জাতীয় স্বাস্থ্য ইন্সটিটিউট (NIH) এর মতে একজন শিশুর শরীরের তাপমাত্রা ৯৯.৫ ডিগ্রি ফারেনহাইট বা ৩৭.৫

ডায়াবেটিসের প্রাকৃতিক চিকিৎসা

বর্তমানে ডায়াবেটিস খুব প্রচলিত একটি রোগ। নানা কারনে মানব দেহে এই রোগ হতে পারে। এটা দুই ধরনের হয়ে থাকে। ধরন ১ ডায়াবেটিস (Type 1 diabetes) হয় যখন দেহ ইনসুলিন (Insulin) বা হর্মোন তৈরি করতে পারে না। দ্বিতীয় ধরনের ডায়াবেটিস (Type 2 diabetes) হয় যখন দেহ পর্যাপ্ত পরিমাণে ইনসুলিন উৎপাদন করতে পারে না অথবা উৎপাদিত ইনসুলিন ভালভাবে কাজ করে না।
হাত পা ঘামার ঔষধ

হাত পা ঘামার প্রাকৃতিক চিকিৎসা

অতিরিক্ত হাত পা ঘামা অন্যান্য রোগের মতই একটি রোগ এবং অনেকেই এই রোগে আক্রান্ত। হাত ঘামার কারণে অন্যের সাথে হাত মেলাতে বা হ্যান্ডশেক করতে ভয় লাগে। পা ঘামার কারণে সবার সামনে মোজা খুলতে ভয় পান। কেননা বিকট দুর্গন্ধে সবাই আপনার দিকে ভয়ঙ্কর দৃষ্টিতে তাকাবে। কেউ কেউ আবার হাসাহাসি করবে। হাত পা ঘামার সমাধান খুঁজতে খুঁজতে ক্লান্ত হয়েছেন।
শুষ্ক ও রুক্ষ ত্বকের যত্ন

শুষ্ক ও রুক্ষ ত্বকের যত্ন । ১০ টি ঘরোয়া ময়েশ্চারাইজার

শুষ্ক ও রুক্ষ ত্বক শীতকালের একটি সাধারণ সমস্যা। গরমকালে ধুলাবালির কারণে ত্বক শুষ্কতা দেখা দেয়। আর শীতের শুষ্ক বাতাস ত্বকের আদ্রতা শুষে নেয় ফলে ত্বক রুক্ষ হয়ে যায়। এছাড়াও বয়সের কারণে, পুষ্টির অভাবে এবং বংশীয় কারণে ত্বক শুষ্ক ও রুক্ষ হতে পারে। শুষ্ক ও রুক্ষ ত্বকের যত্নে বাজারে প্রচলিত অনেক লোশন এবং ময়েশ্চারাইজার ক্রিম পাওয়া যায়।
শিশুর সর্দি কাশি হলে করনীয়

শিশুদের সর্দি-কাশি হলে করনীয়

প্রত্যেক বছর বাংলাদেশে কমপক্ষে হাজার হাজার নবজাতক এবং শিশুরা সর্দিকাশিতে ভোগে শুধুমাত্র দুর্বল রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা হওয়ার কারণে। অধিকাংশ শিশু জন্মের প্রথম বছরে সাতবারের বেশি ঠান্ডা রোগে আক্রান্ত হয়। নানা মাধ্যমে শিশুদের শরীরে রোগসংক্রামণ দ্বরা আক্রান্ত হয়। ক্ষতিকর ভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত ব্যাক্তি অথবা দূষিত বাতাস এবং আবহাওয়ার মাধ্যে বেশি আক্রান্ত হয়।
মেয়েদের ওজন কমানোর উপায়

মেয়েদের ওজন কমানোর উপায়

মেয়েদের ওজন কামানোর উপায়গুলোর মধ্যে নির্দিষ্ট পরিমাণে ঘুম, পরিমিত খাওয়া, সবসময় হাসি খুশি থাকা, শরীরের যত্ন নেয়া এবং কিছু ব্যায়াম করা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। অতিরিক্ত মুটিয়ে যাওয়া মেয়েদের সমস্যার শেষ নেই। শারীরিক, মানসিক, পারিবারিক এমনি বন্ধুদের মধ্যেও সে হাসির পাত্র এবং বৈষম্যের শিকার। আর আমাদের দেশে এটা আরো ভয়াবহরূপে দেখা যায়।
দ্রুত ওজন কমানোর খাবার তালিকা

মাসে ১০ কেজি ওজন কমানোর খাবার তালিকা

১ মাসে ১০ কেজি ওজন কমানো অসম্ভব নয়। কঠোর ইচ্ছাশক্তি ও পরিশ্রমের মাধ্যেমে এটা করা যায়। আপনার মনও দেহ যদি এটা করতে পুরোপুরি সম্মতি না দেয় তাহলে এটা চেষ্টা করাই ভাল। কেননা শুধু ৭-১০ দিন কষ্ট করার কোন মানে হয় না। আপনি বরং অন্যকোন পদ্ধতি অনুসরণ করুন। আপনি আজ শুরু করলে আজ থেকেই ওজন কমা শুরু করবে না।
ব্যায়াম ছাড়া ওজন কমানোর উপায়

ব্যায়াম ছাড়া ওজন কমানোর ৯ টি সহজ উপায়

স্বাস্থ্যবান ও মানানসই থাকার জন্য ওজন নিয়ন্ত্রণ রাখা খুব জরুরী। বিশেষকরে যাদের ওজনবেশি তাদের নিয়মিত ব্যায়াম করা উচিত। অনেক ধরনের ব্যায়াম আছে যেগুলো করার জন্য আপনাকে জিম বা ব্যায়ামাগারে যেতে হবে না। ব্যায়াম ছাড়া ওজন কমানোর ৯ টি সহজ উপায় বলব আপনাদের। যেগুলো নিয়মিত অনুশীলন করলে আপনার ওজন নিয়ন্ত্রিত হবে এবং মানসিক প্রশান্তি আসবে।
আপনার পছন্দের লেখাগুলো নিয়মিত পেতে ইমেইল দিয়ে এখনি সাবস্ক্রাইব করুন।
সর্বশেষ পোস্টগুলো




বিভাগগুলো